অন্তর্বর্তীকালীন সরকার নয়, পূর্ণ ক্ষমতা চায় তালেবান

শেষ পর্যন্ত ক্ষমতা বদল হল আফগানিস্তানে। প্রায় দু’দশক পর আফগানিস্তানে আবার শুরু হল তালেবান শাসন। কাবুলের ক্ষমতা দখল করার পরেই সেখানকার প্রধান জেলখানার দরজা খুলে দিয়েছে তালিবান। খবর আল জাজিরা ও আনন্দবাজারের।

সেখানে বন্দি তালিবান যোদ্ধাদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে। কাবুলের প্রায় সব সরকারি ভবনে উড়ছে তালিবানের পতাকা। গোটা শহর জুড়ে ক্ষমতা বদলের ছবি স্পষ্ট। রাজপথের দখল নিয়েছে তালিবান। চলছে উল্লাস। জনপথে গাড়ির ভিড়ে যানজট তৈরি হয়েছে। সবাই নিজেদের বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছেন।

প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির পদত্যাগের পর আফগানিস্তানের বর্তমান সরকার অন্তর্বতীকালীন সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

এদিকে রাজধানী কাবুলে ঢুকে পড়ার পর বিদ্রোহীগোষ্ঠী তালেবান আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার নয়, বরং সম্পূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি তুলেছে। তালেবানের কর্মকর্তারা বলেছেন, তারা আফগানিস্তানে ক্ষমতার সম্পূর্ণ হস্তান্তর চায়।

রোববার তালেবানের দু’জন কর্মকর্তা ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, আফগানিস্তানে কোনও ধরনের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার হবে না। তারা আফগানিস্তানের ক্ষমতার পূর্ণ হস্তান্তর প্রত্যাশা করছে।

এদিকে আফগান গণমাধ্যমে খবর এসেছে, এই অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন দেশটির সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও কূটনীতিক আলী আহমাদ জালালি।

আফগানিস্তানের সংবাদ সংস্থা খামা প্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোববার বিকেলে তালেবান প্রধান মোল্লা আবদুল গনি বরাদর কাতার – আমেরিকার কূটনীতিবিদদের নিয়ে আশরাফ ঘানির সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন। এ বৈঠকের পরই সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

তালেবানের সহ প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আব্দুল ঘানি বারাদার আফগানিস্তানের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন বলে খবর এসেছে আরব গণমাধ্যমগুলোতে। রোববার (১৫ আগস্ট) বিকেল ৪টার দিকে আফগানিস্তানের গণমাধ্যমগুলো জানায়, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন আশরাফ ঘানি।

সরকারের একজন মন্ত্রী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কাবুলে হামলা হবে না, এই শর্তে তালেবানের সঙ্গে সমঝোতা হয়েছে। এ দিন বিকেলে তালেবান প্রধান মোল্লা আবদুল গনি বরাদর এবং কাতার – আমেরিকার কূটনীতিবিদদের সঙ্গে বৈঠকের একপর্যায়ে ঘানির পদত্যাগের ঘোষণা আসে।

ঘানির পদত্যাগের ঘোষণা পরি আফগানিস্তানের শান্তি প্রক্রিয়া মিশনের প্রধান আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ ফেসবুকে ভিডিও বার্তায় জানান, আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখলের পর দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি দেশ ছেড়েছেন। তিনি জানান, আশরাফ গনি রোববার সন্ধ্যার দিকে দেশ ছেড়ে তাজিকিস্তানের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

রোববার সকালে আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় গুরুত্বপূর্ণ শহর জালালাবাদের দখল নেয় তালেবান। কোনো যুদ্ধ ছাড়াই তালেবান শহরটির দখল নিতে সক্ষম হয়। জালালাবাদ দখলের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে অন্তত ২৮টির রাজধানীর নিয়ন্ত্রণ এখন তালেবানের হাতে। পরে বিকেল ৪টার দিকে আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন আশরাফ গনি।

২০০১ সালে নিউইয়র্কের টুইন টাওয়ারে প্রাণঘাতী হামলার ঘটনায় আফগানিস্তানে সামরিক অভিযান শুরু করেছিল যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো।

দুই দশকের যুদ্ধ শেষে দেশটি থেকে পশ্চিমা সৈন্য প্রত্যাহার করে নেওয়ায় ক্ষমতায় ফেরার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে তালেবান। মাত্র ১০ দিনের তড়িৎগতির অভিযানে দেশের ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে ২৮টির রাজধানীর দখল নেওয়ার পর রোববার কোনও ধরনের প্রতিরোধ ছাড়াই কাবুলে পৌঁছায় তালেবান।

দেশটির বিদ্রোহী এই গোষ্ঠী ক্ষমতার পূর্ণ হস্তান্তরের দাবি তুললেও আফগান সরকারের ভারপ্রাপ্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল সাত্তার মিরজাকাওয়াল বলেছেন, অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *