ঘিওরে সাংবাদিকের উপর হামলা

মানিকগঞ্জের ঘিওরে সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রবিবার রাত ১০ টার দিকে বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলা সদরের কুস্তা গ্রামে ১৯২৬ খ্রিস্টাব্দে স্থাপিত কুস্তা, জামিয়া ইসলামিয়া আশরাফুল উলুম মাদরাসা ও আম্মাতুন নিসা হিফ্জ খানা, এতিম খানা ও লিল্লা বোডিং এর পুকুরের মাটি জোড় করে ভেকু মেশিন দিয়ে কেটে নিয়ে বিক্রি করার অভিযোগ উঠে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি উজ্জলের বিরুদ্ধে।

গত ১৫/১৬ বছর আগে কুস্তা গ্রামের সন্তান মরহুম ডাঃ আব্দুর রহিম খান জমি ক্রয় করে এতিম খানার এতিমদের আয়ের উৎস হিসেবে দান করে গিয়েছিলেন পুকুরটি। এতিম খানার সেই পুকুর গত ২০১৮ সনের ফেব্রুয়ারী মাসের ১৭ তারিখে চুক্তি ভিত্তিক পুনঃ খনন কাজের জন্য দেওয়া হয়। এতিম খানা কর্তৃপক্ষের দাবী চুক্তিপত্র অনুযায়ী অবৈধভাবে পুকুর খনন করা যাবে না এবং চুক্তির মেয়াদকালীন সময়ের মধ্যে পুকুর খনন কাজ শেষ করতে হবে।

কিন্তু চুক্তিপত্র ২০২১ সনের এপ্রিল মাসের ১৩ তারিখে শেষ হয়ে গেলেও অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন ও ভেকু মেশিন দিয়ে অপরিকল্পিতভাবে তলদেশ থেকে মাটি উত্তোলন করায় পুকুরের কাঠামোসহ আশেপাশের অন্য কৃষকের ফসলী জমি হুমকির মুখে পড়ে। এছাড়াও পুকুর খননের অজুহাতে পুকুরের কাঠামোতে মারাত্মক ক্ষতি সাধন হয়েছে। পুঃখনন কাজে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও অবৈধভাবে জোড় করে মাটি বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে এতিমখানার এতিমদের মুখের গ্রাস কেড়ে নিচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, এতিম খানার পুকুরের কাঠামোতে বেহাল দশা। আর মাটি স্থানান্তরে ব্যবহৃত হাইট্রলি ট্রাক্টরের নিষ্ঠুর কষাঘাতে ভেঙ্গেচুরে গেছে সরকারি ইট বিছানো রাস্তা। এই করোনা পরিস্থিতিতেও ধুলোবালিতে ভরে গেছে রাস্তার দু’পাশের মানুষের বসত ঘর। স্বাভাবিক জীবন যাপনে চরম বিপাকে পড়েছে স্থানীয় বসবাসকারীরা। মোঃ রফিকুল ইসলাম উজ্জলের উদ্ভট দাপটের কাছে জিম্মী হয়ে পড়েছে লোকজন। কেউ কোন প্রতিবাদ জানাতে গেলে তাকে পড়তে হচ্ছে চাঁদাবাজী মামলার ভয় সহ নানা হুমকির মুখে।

কুস্তা এতিমখানার পুকুরের মাটি রাতের আঁধারে জোর করে কেটে নেওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তথ্য সংগ্রহ ও সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ঘিওর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম উজ্জল সাংবাদিককে আক্রমণ করার চেষ্টা করে এবং মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ বিষয়ে সাংবাদিক সোহেল রানা বাদী হয়ে ঘিওর থানায় একটি অভিযোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *