তাইওয়ানে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে নিহত ৩৬

তাইওয়ানে রেল দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৩৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কয়েক ডজন মানুষ। শুক্রবার (২ এপ্রিল) সকালে তাইওয়ানের পূর্বাঞ্চলে একটি সুড়ঙ্গের ভেতরে জনাকীর্ণ ট্রেন লাইনচ্যুত হলে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

তাইওয়ান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শুক্রবার থেকে সেখানে দীর্ঘ ছুটি শুরু হচ্ছে। এ উপলক্ষে অনেক মানুষ এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় ভ্রমণ করছিলেন। যার কারণে স্বাভাকিভাবেই ট্রেনে প্রচন্ড ভিড় ছিল।

তাইওয়ানের পরিবহন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৭২ জন ট্রেন যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের ভেতরে এখনও অনেক যাত্রী আটকা পড়ে আছেন বলেও জানিয়েছে তারা।

এর আগে ভূখণ্ডটির জরুরি সেবা বিভাগ জানিয়েছিল, দুর্ঘটনার কারণে বেশ কিছু মানুষ মারা গেছে। ট্রেনটি মোট আটটি বগি নিয়ে গন্তব্যে যাচ্ছিল। তাইওয়ানের সেন্ট্রাল ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার বলছে, সুড়ঙ্গের ভেতরে ট্রেনের চারটি বগি লাইনচ্যুত ও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা সেখানে প্রবেশের চেষ্টা করছেন। তবে বগিগুলো এতোটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যে সেগুলোর ভেতরে উদ্ধাকর্মীদের পৌঁছাতে বেগ পেতে হচ্ছে।


তাইওয়ানের রেলওয়ে অ্যামিনিস্ট্রেশনের তথ্য অনুযায়ী, আটটি বগিতে ৩৫০ জন যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি তাইতুং নামক অঞ্চলে যাচ্ছিল। পরে হুয়ালিয়েন নামক এলাকার উত্তরে একটি সুড়ঙ্গে স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ট্রেনটি দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত একটি ছোট ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে- উদ্ধারকর্মীরা সুড়ঙ্গের ভেতরে দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের কাছে পৌঁছেছেন এবং দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া দরজা দিয়ে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করছেন।

তাইওয়ানের পরিবহন ও যোগাযোগমন্ত্রী লিন চিয়া-লাং টুইটারে জানিয়েছেন, তিনি দুর্ঘটনাকবলিত স্থানের দিকে রওয়ানা হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘দুর্ঘটনার পর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে আমি তাইওয়ান রেলওয়েকে নির্দেশনা দিয়েছি। এছাড়া আমি নিজেও দ্রুত ওই এলাকায় যাচ্ছি।’

সূত্র: আলজাজিরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *