প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে অসচ্ছল, দুস্থ মানুষের পাশে ছাত্রলীগ নেতা মারুফ হোসেইন

করোনা ভাইরাস বিস্তারের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ১ বছর বেশি সময় ধরে ছাত্রলীগ নেতা মারুফ হোসেন সাধ্যমতো সাধারন অসহায়, অস্বচ্ছল পরিবারের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

এ বছর আবার যখন নতুন করে লডকাউন আর করোনার প্রকপ বাড়তে শুরু করেছে তখনই জীবনের ঝুকি নিয়ে আবার মাঠে নেমে পড়েছেন এই করোনা যোদ্ধা। চলতি মাসে যখন প্রতিদিনই দেশে করোনায় আক্রন্ত ও মৃত্যুর নতুন নতুন রেকর্ড করছে তখন থেমে নেই এই মহৎপ্রাণ ছাত্রনেতা। রোজাদারসহ অসহায় মানুষের মানুষদের মাঝে ইফতারি বিতরন ও শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘুড়ে ঘুড়ে অসহায় পথচারী, অস্বচ্ছল, ভাসমান লোকদের মাঝে সেহেরীও বিতরন করতে দেখা গেছে তাকে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রনেতা মারুফ হোসেন ইনিউজকে বলেন, দুর্যোগকালীন সময়ে ছিন্নমূল, খেটে-খাওয়া নিন্মবিত্তের পাশাপাশি কর্মহীন নিন্ম-মধ্যবিত্ত আর মধ্যবিত্ত পরিবারের কস্টের শেষ নেই। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে আপনার আশেপাশেই হয়তো এমন অসহায় অনেক মানুষ আছে যারা ‘না পারে সইতে, না পারে কইতে’। একটু খোঁজ নিন, সাধ্যমতো তাদের পাশে দাঁড়ান, সাহায্য করার চেষ্টা করুন। দুর্যোগেই মনুষত্বের পরীক্ষা হয় তাই এই দৃষ্টিকোন থেকেই অসংখ্য সুবিধা বঞ্চিত পরিবারের মাঝে চাল,ডাল,তেল,আলু,মাস্ক,সাবানসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী দেওয়ার চেষ্টা করুন।

তার সাথে কথা বলে জানা যায়, ইতিমধ্যেই ১৬ টি অসহায় অস্বচ্ছল পরিবারের দায়িত্ব নিয়েছেন এই ছাত্রনেতা। মহাখালীতে বসবাসরত মাদারীপুর জেলার এই ১৬ টি পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। মাদারীপুর জেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের ইদ্দিস আলী,কুনিয়া ইউনিয়নের আমেনা খাতুন, হাউসদীর সুমন বেপারী সহ এই ১৬ টি পরিবারকে সামর্থ্য অনুযায়ী পূর্বে থেকেই সাধ্যমতো সহায়তা করতো। নিজ জেলার হওয়ায় তারা মাঝে মধ্যে যেকোন প্রয়োজন ও সমস্যা হলে আসতো মারুফ হোসেন এর কাছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে মহাখালী, ওয়ারলেস গেট সোহাগের মুদির দোকান থেকে চাল, ডাল, তেল, আটা, লবন, ডিমসহ অতি প্রয়োজনীয় কিছু খাদ্য সামগ্রী এই ১৬ টি অসহায় অস্বচ্ছতা পরিবারকে ব্যবস্থা করে দেন এবং দেশের এই পরিস্থিতি যতোদিন পর্যন্ত স্বাভাবিক না হবে ততোদিন পর্যন্ত এই দোকান থেকে বাকীতে এই ১৬ টি পরিবার এই সকল খাদ্য সামগ্রী সংগ্রহ করবে এবং সময় নিয়ে অল্প অল্প করে সকল টাকা ছাত্রনেতা মারুফ হোসেন পরিশোধ করবে বলে জানা যায়।

এই ছাত্রলীগ নেতা আরো বলেন, যত দিন জীবিত আছি ততোদিন আর্তমানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা’র একজন বিস্বস্ত কর্মী হয়ে মানব সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন এবং বাড়িতে সুরক্ষার জন্য বাহিরে জরুরী কাজ ছাড়া না বের হওয়ার জন্য অনুরোধ করে বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশ বাস্তবায়ন ও বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশ মোতাবেক সকল নেতা কর্মীরা অসহায় মানুষ চিহ্নিত করে তাদের কে খাদ্য সরবরাহ করে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে মারুফ হোসেন এই দায়িত্ব নিয়েছেন বলে অবিহিত করেন।

বেশ কিছু গণসচেতনতামূলক কর্মকান্ডের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা সাধারণ মানুষদের সচেতন করতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কীভাবে কাজ করতে হবে সে সম্পর্কে অবগত করছি। আমরা ছাত্রলীগ থেকে চেষ্টা করছি যে যেভাবে পারি এই ক্রান্তিকালে মানুষের পাশে ঐক্যবদ্ধভাবে থাকার ।

মারুফ মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগ ও জেলার একমাত্র সরকারি কলেজে ছাত্র-সংসদ নির্বাচনে “নাকসু”তে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মনোনীত প্যানেলে বিপুল ভোটে নির্বাচিত ছাত্র সংসদের সদস্য হয়। সরকারি তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সভাপতি প্রার্থী ছিলো, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগে সহ-সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *