মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০২:১৮ অপরাহ্ন

sakarya escort sakarya escort sakarya escort serdivan escort webmaster forum

serdivan escort serdivan escort serdivan escort hendek escort ferizli escort geyve escort akyazı escort karasu escort sapanca escort

পটুয়াখালীতে মাসুদ রানা হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত আলামত উদ্ধার

মোঃ শাহিন আলম, পটুয়াখালী প্রতিনিধি
  • আপডেট : বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৪ বার পঠিত
পটুয়াখালীতে মাসুদ রানা হত্যাকান্ড

পটুয়াখালী সদর থানাধীন বড়বিঘাই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ওহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার মোটরসাইকেল চালক মাসুদ রানা ব্যাপারীকে গত (৬ নভেম্বর) শ‌নিবার নৃশংস ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে জনৈক শ্যামল ডাক্তারের ডোবায় ফেলে রাখা হয়।

ভিকটিমের ভাই মাহফুজুর রহমান (১৬) হত্যাকান্ডের বিচার চেয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৪, তাং-০৭-১১-২০২১, ধারা-৩০২/২০১/৩৪ দঃ বিঃ। মামলা দায়েরের পরবর্তী সময় মামলাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পুলিশ সুপারের তাৎক্ষনিক দিক-নির্দেশনায় অপরাধ ও প্রশাসনের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) পটুয়াখালী, ডিবির একটি টিম ও পটুয়াখালী থানা পুলিশের সমন্বয়ে যৌথ অভিযানিক দল মামলা দায়ের হওয়ার ৫ ঘন্টার মধ্যেই হত্যাকান্ডে জড়িত ৪ জন আসামীকে গ্রেফতার করেন।

আটক ব্যাক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, নির্বাচন কালীন সময়ে তারা স্থানীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ওয়াহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার সমর্থনে প্রচারনার কাজ করতেন। স্থানীয় রাজনৈতিক দ্বন্দ্বে ফায়দা হাসিলের উদ্দেশ্যে ভিকটিম মাসুদ রানাকে টার্গেট করে এই হত্যাকান্ডের পরিকল্পনা করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী আল-আমিন হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকা অন্যান্য আসামীর নাম উল্লেখ করে বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারা মোতাবেক জবানবন্দি প্রদান করে।

গত (১১ নভেম্বর) বড়বিঘাই এলাকা হতে স্থানীয় জনগনের সহায়তায় ঘটনায় জড়িত থাকা মাষ্টার মাইন্ড বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিল্লালের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী এবং বাকী আসামীদের দেওয়া জবানবন্দি পর্যালোচনা শেষে ঘটনায় জড়িত থাকা অপর এক আসামী মাসুম বিল্লাহকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জানা যায়, গত (২৩ নভেম্বর) এলাকা থেকে ঢাকার পথে পালিয়ে যাওয়ার সময় মির্জাগঞ্জ থানা এলাকা থেকে আসামী মাসুম বিল্লাহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। গ্রেফতারকৃত প্রত্যেক আসামীরাই এই হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করলেও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত আলামত সমূহ উদ্ধারের ব্যাপারে কৌশলে নিজেদের এড়িয়ে যায়।

সর্বশেষ আসামী মাসুম বিল্লাহকে নিবিড় ও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত আলামত সূমহের গোপন জায়গায় কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেন। সেই তথ্য থেকে জানা যায়, বড়বিঘাই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার বাড়ির উত্তর পাশের পুকুরে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত আলামত ফেলে রাখার হয়। তথ্য বিশ্লেষণ করে পরবর্তীতে পুকুরে অনুসন্ধান চালিয়ে সেখান থেকে একটি চাইনিজ কুড়াল, লোহার রডের সাথে স্ক্রু সংযুক্ত চেইন গিয়ার এর সমন্বয়ে তৈরিকৃত দেশীয় অস্ত্র এবং দুটি বগি দা উদ্ধার করে পুলিশের অুনসন্ধানকারী টিমের সদস্যরা।

পরবর্তীতে আজ (২৪ নভেম্বর) সকাল ১১টায় পটুয়াখালী জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং এ জানানো হয় যে, এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকা বাকী আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© All rights reserved © 2021 Dailynobobarta
Developed By Dailynobobarta