dailynobobarta logo
আজ মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | কনভার্টার
  1. অন্যান্য
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. ধর্ম
  7. প্রযুক্তি
  8. বাংলাদেশ
  9. বিনোদন
  10. বিশেষ নিবন্ধ
  11. লাইফস্টাইল
  12. শিক্ষা
  13. শিক্ষাঙ্গন
  14. সারাদেশ
  15. সাহিত্য

ইমার্জিং এশিয়া কাপের সেমিতে বাংলাদেশ

প্রতিবেদক
স্পোর্টস ডেস্ক
মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩ | ১১:৪৬ অপরাহ্ণ
ইমার্জিং এশিয়া কাপের সেমিতে বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কায় চলছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল আয়োজিত ইমার্জিং এশিয়া কাপ। প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে ব্যর্থতার পর ওমানকে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ ‘এ’ দল। এ টুর্নামেন্টে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আজ আফগানিস্তান ‘এ’ দলের মুখোমুখি হয়ে বাংলাদেশ।

এদিন টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদুল হাসান জয়ের শতকে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৮ রান সংগ্রহ করে জুনিয়র টাইগাররা। জবাবে ব্যাট করেত নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৮৭ রানে থামে আফগানরা। ফলে গ্রুপের শেষ ম্যাচে ২১ রানের জয়ে সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের দেওয়া ৩০৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৬ রানেই ওপেনার জুবায়েদ আকবরীকে হারায় শ্রীলঙ্কায়। তবে দ্বিতীয় উইকেটে শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে বড় জুটি গড়েন রিয়াজ হাসান-নুর আলী। ৯০ রান করেন এ জুটি। কিন্তু দলীয় ১১৬ রানে নুর সাজঘরে ফেরলে ভাঙে এই জুটি। এরপর তৃতীয় উইকেটে শহীদুল্লাহকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন ওপেনার রিয়াজ হাসান। তবে শতকের কাছে যেয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন রিয়াজ। ১০৫ বলে ৭৮ করেন তিনি।

এরপর চতুর্থ উইকেটে বাহির শাহকে নিয়ে বাংলাদেশ বলারদের উপর চড়া হতে থাকেন শহীদুল্লাহ। এই দুই জুটি মিলে গড়েন ৭০ রান। পরে ইকরাম আলীখিল১, ইজহারুল হক নাভিদ ১৫ ও শরফুদ্দিন আশরাফ ১৪ করে হারের ব্যবধান কমিয়েছে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৮৭ রান করে আফগানরা। বল হাতে বাংলাদেশের হয়ে তানজিম হাসান সাকিব নেন সর্বোচ্চ তিনটি উইকেটে। এছাড়া সৌম্য সরকার ও রাকিবুল হাসান নেন ২টি করে উইকেট।

টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে আজ আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই বাংলাদেশের। এমন সমীকরণ নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি জুনিয়র টাইগারদের। আগের দুই ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম আজ ফিরে গেছেন ব্যক্তিগত ১৮ রানেই। দলীয় ২৫ রানে তামিমের বিদায়ের পর স্কোরবোর্ডে আরও ৫ রান যোগ হতে না হতেই ফিরে যান আরেক ওপেনার মোহাম্মদ নাইমও।

দলীয় ৩০ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপের মুখেই দলকে আরও একবার হতাশায় ভাসিয়েই বিদায় নেন অধিনায়ক সাইফ হাসানও। তবে এরপরও বিপর্যয় রক্ষা করার কৃতিত্ব জাকির হাসান এবং জয়ের। চতুর্থ উইকেটে এ দুজন মিলে গড়েন ১১৭ রানের জুটি।

ব্যক্তিগত ৬২ রানে জাকির সাজঘরে ফিরলেও সৌম্য সরকারকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন জয়। ব্যক্তিগত ৪৮ রানে সৌম্য সাজঘরে ফিরলেও জয় ঠিকই তুলে নিয়েছেন নিজের সেঞ্চুরি। ১১৪ বলে ১২ চার এবং ২ ছয়ে শতক পূর্ণ করার পরই আউট হন তিনি।

এরপর শেখ মেহেদীর ক্যামিও ইনিংসের কল্যাণে ৫০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৭ উইকেটে ৩০৮। বল হাতে আফগানদের হয়ে সর্বচ্চ ৪ টি উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ সেলিম। জয়ের জন্য আফগানিস্তানের প্রয়োজন ৩০৯ রান।

স্পোর্টস ডেস্ক
+ posts

সর্বশেষ - মানিকগঞ্জ