dailynobobarta logo
আজ বুধবার, ১৯ জুলাই ২০২৩ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | কনভার্টার
  1. অন্যান্য
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. ধর্ম
  7. প্রযুক্তি
  8. বাংলাদেশ
  9. বিনোদন
  10. বিশেষ নিবন্ধ
  11. লাইফস্টাইল
  12. শিক্ষা
  13. শিক্ষাঙ্গন
  14. সারাদেশ
  15. সাহিত্য

লক্ষ্মীপুরে নিহত সজিব হত্যার বিচার দাবী আওয়ামী লীগের

প্রতিবেদক
কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
বুধবার, ১৯ জুলাই ২০২৩ | ৮:২৪ অপরাহ্ণ

বিএনপির পদযাত্রা ও আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশকে কেন্দ্র করে লক্ষ্মীপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত সজীবের হত্যার বিচার দাবী করেছেন লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন এমপি।

আজ বুধবার (১৯ জুলাই) বিকেলে শহরস্থ দলীয় অস্থায়ী কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগ আহুত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ বিচার দাবী করেন।

এসময় তিনি বলেন, একজন পথচারী ব্যাক্তিগত শত্রুতার জের ধরে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত হয়েছে। খবর নিয়ে জানা গেছে তার কোন রাজনৈতিক পরিচয় নেই। সে একজন টাইলস মিস্ত্রি। কর্মসূচী চলাকালিন সময়ে বিচ্ছিন্ন ঘটনায় নিহত হওয়ার পরে গভীর রাতে বিএনপি তাকে নিজেদের দলীয় কর্মী দাবী করে ঘটনাকে রাজনৈতিক রূপ দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। আওয়ামী লীগকে দায়ী করার অসৎ উদ্দেশ্যে বিএনপি হত্যার ষড়যন্ত্রে মেতেছে।

তিনি আরও বলেন, যেভাবেই হোক এমন হত্যার ঘটনা ন্যাক্কারজনক। আমরা এ হত্যাকান্ডের নিন্দা জানাই। একইসাথে সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে হত্যাকান্ডে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে তাদের বিচারের দাবী জানাই।

সংবাদ সম্মেলনে নুরউদ্দিন নয়ন আরও বলেন, বিগত কয়েক বছর থেকে সারাদেশের ন্যায় লক্ষ্মীপুরেও আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও শান্তির সুবাতাস বইছে। এমন শৃঙ্খল পরিবেশে জীবনযাত্রায় যখন জেলাবাসী স্বস্তিবোধ করছে, ঠিক তখনই বিএনপি এই জনপদকে অশান্ত করার জন্য নানান ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, দেখা গেছে বিএনপি নেতারা তাদের সভা সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের বিদ্রুপ করে বক্তব্য দেয়। অশালিন ভাষায় আওয়ামী লীগ নেতাদের নাম ধরে বক্তব্য দেয়। এমন আপত্তিকর বক্তব্যের মধ্য দিয়ে বিএনপি নেতারা তাদের কর্মীদের সহিংস হতে উস্কানি দিচ্ছে। বিএনপির ছত্রছায়ায় ইতিপূর্বে (বিএনপির ক্ষমতাকালিন) লক্ষ্মীপুর সন্ত্রাসীদের জনপদ হয়ে ছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রশাসনের সহযোগীতায় অনেক কষ্ট করে এ জনপদকে সন্ত্রাসমুক্ত করা হয়েছে। এজন্য লক্ষ্মীপুরবাসী এখন আওয়ামী লীগের উপর অনেক আস্থাশীল। সেজন্য বিএনপির মনে সইছেনা। তারা তাই উঠেপড়ে লেগেছে লক্ষ্মীপুরকে ফের অশান্ত করে লুটপাট,হত্যাযজ্ঞ সহ বিভিন্ন নির্বিচার চালিয়ে যেতে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু বলেন, দুই দলের কেন্দ্রীয় কর্মসূচী ছিল। আওয়ামী লীগ উত্তর তেমুহনী এলাকায় শান্তি সমাবেশ করছিল। এবং বিএনপি দক্ষিণ তেমুহনী থেকে ঝুমুর এলাকায় পদযাত্রা কর্মসূচী করছিল। এ অবস্থায় ওই সময়ে কলেজরোডে আমাদের কিংবা তাদের দলীয় কর্মসূচীতে আসা কারও অবস্থান করার কথা নয়। তাহলে রাজনৈতিক সহিংসতায় সেখানে হত্যাকান্ড ঘটার কোন সুযোগও থাকেনা। এদিন ব্যাক্তিগত কারনে বিচ্ছিন্ন ঘটনায় হত্যাকান্ডে যারা জড়িত তাদের অবিলম্বে চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনার দাবী জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির পাটোয়ারী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ আহমেদ পাটওয়ারী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া মান্না, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়া প্রমুখ।

সর্বশেষ - মানিকগঞ্জ