dailynobobarta logo
আজ বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | কনভার্টার
  1. অন্যান্য
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. ধর্ম
  7. প্রযুক্তি
  8. বাংলাদেশ
  9. বিনোদন
  10. বিশেষ নিবন্ধ
  11. লাইফস্টাইল
  12. শিক্ষা
  13. শিক্ষাঙ্গন
  14. সারাদেশ
  15. সাহিত্য

ঢাকা টেস্ট : বাংলাদেশের পর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ে ধস

প্রতিবেদক
স্পোর্টস ডেস্ক
বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩ | ৬:০৮ অপরাহ্ণ
ঢাকা টেস্ট, বাংলাদেশের পর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ে ধস

প্রথম দিনেই ১৫ উইকেট! মিরপুরের মন্থর পিচে প্রত্যাশিতভাবেই দাপট দেখালেন দুই দলের স্পিনাররা। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৯টি উইকেটই ভাগাভাগি করে নিয়েছেন কিউই তিন স্পিনার মিচেল স্যান্টনার, গ্লেন ফিলিপস ও এজাজ প্যাটেল। অন্যদিকে, এখন পর্যন্ত পতন হওয়া সফরকারীদের পাঁচটি উইকেটও দুই টাইগার স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামের দখলে গেছে।

আজ (বুধবার) সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। ঘূর্ণিঝড় মিগজিউমের প্রভাবে আকাশে মেঘ থাকায় এদিন শুরু থেকেই খেলা হয়েছে ফ্লাডলাইটের আলোতে। কৃত্রিম আলোর নিচে টাইগার ব্যাটাররা রীতিমতো খাবি খেয়েছেন স্পিনারদের সামনে। মাত্র ১৭২ রানেই অলআউট হয় বাংলাদেশ।

অল্প পুঁজি নিয়ে মিরপুরের বধ্যভূমিতে চেনা অস্ত্র সেই স্পিনেই পাল্টা আক্রমণ শানালেন স্বাগতিকরা। আলোকস্বল্পতার কারণে খেলা থামার আগে ১২.৪ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৫৫ রান করেছে নিউজিল্যান্ড। এখনো পিছিয়ে আছে ১১৭ রানে।

নিউজিল্যান্ড ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে মিরাজের হাত ধরে প্রথম সাফল্য পায় বাংলাদেশ। টাইগার এই অলরাউন্ডারের অফ স্টাম্পের বাইরের ডেলিভারি ঠিক বুঝতে পারেননি ডেভন কনওয়ে। ছেড়ে দেওয়া বল সোজা স্টাম্পে গিয়ে আঘাত হানে। সাজঘরে ফেরার আগে ১১ বলে ১৪ রান করেছেন কিউই ওপেনার।

মিরাজের পর উইকেট শিকারে নামেন সিলেট টেস্টের নায়ক তাইজুল ইসলাম। অফ স্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারি টম ল্যাথামের ব্যাটের কানায় লেগে চলে যায় উইকেটের পেছনে। সেখানে দারুণ ক্যাচ তালুবন্দী করেন উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহান। পরপর দুই ওভারে মাত্র ২ রানের ব্যবধানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় কিউইরা।

দলীয় ৩০ রানের মাথায় সফরকারীদের বিপদ বাড়িয়ে সাজঘরে ফিরেন হেনরি নিকোলস। তাইজুলের অফ স্টাম্পের বাইরের বল ক্রিজ ছেড়ে মারতে গিয়েছিলেন নিকোলস। ঠিকঠাক ব্যাটে সংযোগ করতে পারেননি। মিড অনে দারুণ ক্যাচ নেন শরিফুল ইসলাম। মাত্র ১ রানেই ফেরেন কিউই এই ব্যাটার।

আলোকস্বল্পতায় দিনের খেলা বন্ধ হওয়ার আগে এক ওভারেই দুই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটারকে সাজঘরে পাঠান মিরাজ। একে একে ফেরান কেইন উইলিয়ামসন ও টম ব্লান্ডেলকে। মিরাজের করা আগের ওভারেই নিশ্চিত জীবন পেয়েছিলেন উইলিয়ামসন। প্রথম স্লিপে সহজ ক্যাচ মিস করেন শান্ত।

পরে ইনিংসের ১২ তম ওভারে ফের বল হাতে তুলে নিয়ে কিউই সাবেক অধিনায়কের বিদায়ঘণ্টা বাজান মিরাজ। এবার দুর্দান্ত ক্যাচ নেন শাহাদাত দিপু। আনলাকি থার্টিনে কাটা পড়েন উইলিয়ামসন। পরে এক বলের ব্যবধানে ব্লান্ডেলকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পেলেন টাইগার এই অলরাউন্ডার।

এর আগে মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে টাইগার ব্যাটাররা রীতিমতো খাবি খেয়েছেন নিউজিল্যান্ডের স্পিনারদের সামনে। ইনিংসের প্রায় পুরোটা সময় কিউই স্পিনত্রয়ীর বিপক্ষে সংগ্রাম করে গেছেন টাইগাররা। মাঝে মুশফিকুর রহিম নিজের খামখেয়ালিপনার কারণে আউট হয়েছেন ‘অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ডে’র ফাঁদে পড়ে।

মুশফিকের ওই এক আউট দিয়ে পুরো বাংলাদেশ ইনিংসের চিত্র চাইলে আঁকা যেতেই পারে। কেউ আউট হয়েছেন বড় শট খেলতে গিয়ে। আবার কেউ ফিরে গিয়েছেন রিভার্স সুইপ খেলার মতো সিদ্ধান্ত নিয়ে। এমন খামখেয়ালিপনার দিনে বাংলাদেশ অলআউট হয় ১৭২ রানে।

বাংলাদেশের দুই ওপেনার শুরু থেকেই হিমশিম খাচ্ছিলেন মিচেল স্যান্টনার আর এজাজ প্যাটেলের সুইং সামাল দিতে। অবশ্য রান তোলায় খুব একটা তাড়াহুড়ো করেননি জাকির হাসান ও মাহমুদুল হাসান জয়। তাদের অস্বস্তি ছিল, আবার ধৈর্যও টের পাওয়া যাচ্ছিল। একাধিকবার লেগ বিফোরের আবেদন এসেছে, রানআউটের সুযোগ ছিল। কখনো ভাগ্য, আবার কখনো আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে বেঁচে যায় বাংলাদেশ। উদ্বোধনী জুটি পার করে ১০ ওভার।

১১তম ওভারে অকারণে উড়িয়ে মারতে গিয়ে কেইন উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ তুলে দেন জাকির। ঠিক তার পরের ওভারেই এজাজ প্যাটেলের বল ডিফেন্স করতে গিয়ে শর্ট লেগে ক্যাচ দেন আগের ম্যাচে দারুণ ব্যাটিং করা মাহমুদুল হাসান জয়। জাকির খেলেছেন ২৪ বলে ৮ রানের ছোট ইনিংস। সে তুলনায় জয় কিছুটা ধীরস্থির ব্যাটিং উপহার দিয়েছেন ৪০ বলে করেছিলেন ১৪।

দুই আউটের ধাক্কা সামাল দেওয়ার আগেই চাপ আরও বেড়ে যায় টেস্ট দলের সাবেক অধিনায়ক মুমিনুল হকের আউটে। এজাজ প্যাটেলের দিনের দ্বিতীয় শিকার তিনি। সুইং হয়ে ভেতরের দিকে আসা বলটা ইনসাইড-এজ হয়ে বল চলে যায় উইকেটরক্ষক ব্লান্ডেলের হাতে। ৪১ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে বাংলাদেশ। এরপর আবার স্যান্টনারের আঘাত। অহেতুক রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। এরপর দলের প্রয়োজন বুঝে ব্যাট করেন মুশফিক ও দীপু।

দলীয় ১০৪ রানে আবার উইকেটের পতন। এবার মুশফিকের নিজের ভুলেই হলেন ‘অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ড’ আউট। কাইল জেমিসনের বল সলিড ডিফেন্স করেছিলেন মুশফিক। এরপর অহেতুক বলটি ডান হাত দিয়ে ধরে ফেলেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়েরা এতে ‘অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ড’ আউটের আবেদন করেন। তৃতীয় আম্পায়ার ভিডিও রিপ্লে দেখে মুশফিককে আউট ঘোষণা করেন। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমন আউট হলেন মুশফিক।

মুশফিকের পর অপ্রয়োজনীয় শট খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন শাহাদাত দিপু এবং নুরুল হাসান সোহান। ওয়াইড হতে যাওয়া বলে অহেতুক খোঁচা দিতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন দিপু। আর বল আকাশে তুলতে চেয়ে ফিল্ডারের তালুতে ক্যাচ দিয়েছিলেন সোহান। শেষ ভরসা ছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ক্যাচ দিয়েছেন তিনিও। স্যান্টনারের তৃতীয় শিকার ছিলেন মিরাজ।

সিরিজ শুরুর আগে নিজের বোলিং নিয়ে আশাবাদী ছিলেন গ্লেন ফিলিপস। সিলেটেও পেয়েছিলেন উইকেটের দেখা। এবার ঢাকা টেস্টেও পেলেন তিন উইকেট। তাইজুলকে নিজের তৃতীয় শিকার করেছেন দলীয় ১৫৪ রানে। আর শেষ উইকেট হিসেবে শরিফুল ইসলাম আউট হয়েছেন টিম সাউদির বলে। পুরো ইনিংসে এই একটি উইকেটই গিয়েছে কিউই পেসারদের দখলে।

সর্বশেষ - মানিকগঞ্জ